Blog

Twitter এর মাধ্যমে কিভাবে Twitter marketing করতে পারি

Twitter merketing

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম গুলোর মধ্যে Twitter (টুইটার) অন্যতম। Twitter এর মাধ্যমে খুব সহজে একে অপরের সাথে যোগাযোগ স্থাপন করতে পারছি। Twitter এর মাধ্যমে Twitter marketing ও করতে পারি কারণ বানিজ্যিক ভাবেও এর ব্যপক প্রচলন রয়েছে। এটি ব্যবহার করা খুবই সহজ।

এখানে Twitter সম্পর্কে যাবতীয় তথ্য দেওয়া হলোঃ-

  • প্রথমেই একটি নতুন আইডি খুলতে হবে। আইডি খুলার জন্য একটা জি-মেইল আইডি লাগবে।
  • খেয়াল রাখতে হবে যেন Bio টা খুব আকর্ষণীয় হয়।
  • একটা প্রোফাইল পিকচার দিতে হবে এবং পিকচার টা খুব কাছে থেকে তোলা হলে ভালো হয়।
  • একটা কভার পিকচার যুক্ত করতে হবে, সেটার দৈর্ঘ ১৫০০ px এবং প্রস্থ ৫০০ px হবে।

টুইটারের সাধারণ ব্যবহারঃ-

প্রথমেই আসি ফলোয়ার নিয়ে, আমরা কিছু আইডি খুজে বের করবো যাদের ফলোয়ার কয়েক মিলিয়ন, তাদের ফলো পাঠাবো। তারপর তাদের ফলোয়ার দের ফলো পাঠাবো।

  1. ডিরেক্ট মেসেজ(DM):- আপনার ফলোয়ার দের কেই কেবল ডিরেক্ট মেসেজ দিতে পারবেন।
  2. Pin post: আপনার যে কোন পোস্ট কে পিন করতে পারেন। যে পোস্ট টি পিন করবেন সেই পোস্ট টি সব সময় আপনার প্রোফাইলের প্রথমে থাকবে।
  3. Poll:- পোল এর মাধ্যমে কয়েকটি বিষয়বস্তু থেকে আপনার পছন্দের বিষয়টি তে ভোট দিতে পারেন।
  4. Momemt: আপনার যে কোনো পোস্ট কে মমেন্ট এ সংরক্ষণ করে রাখতে পারেন।
  5. Tweet: ১ টি টুইট করার জন্য কয়েকটি বিষয়ের উপর গুরুত্ব দিতে হয়।

অল্প কয়েকটি টুলস এর ব্যবহার জানলেই টুইটার ব্যবহার করে Twitter marketing করা অনেক সহজ হয়ে যাবে।

যেমনঃ- টুইট এর সময়, টাইটেল, হ্যাস(#) ট্যাগ, লিংক, পিকচার, ভিডিও এনিমেশন ইত্যাদি।

এসব সঠিকভাবে ব্যবহার করার জন্য কয়েকটি টুলস রয়েছে।

  1. Tweetdeck: এই টুলস এর মাধ্যমে শিডিউল পোস্ট করতে পারি অর্থাৎ পরবর্তী যে কোনো সময়ের জন্য পোস্ট করে রাখতে পারি।
  2. Hootsuit: এটার মধ্যমেও শিডিউল পোস্ট করে রাখতে পারি।
  3. Titel generator: এর মাধ্যমে আমরা খুব সহজে ইউনিক টাইটেল খুঁজে পেতে পারি।
  4. Hastagify.me: এই টুলস এর মধ্যমে আমাদের কনটেন্ট রিলেটেড হ্যাস(#)ট্যাগ খুঁজে বের করতে পারি।হ্যাস(#) ট্যাগ এর জন্য আরো কিছু টুলস রয়েছে। যেমনঃ- Ritetag, Exporttweet ইত্যাদি।
  5. Bitly: টুইটারে টুইট করার জন্য খুব অল্প পরিমাণ শব্দ ব্যবহার করতে পারি, তাই একটি বড় লিংক কে ছোট করার জন্য Bitly নামের এই টুলস ব্যবহার করতে পারি।
  6. Pixabay: পিকচার এবং ভিডিও খুব সহজে এই ওয়েবসাইট থেকে নিতে পারি।

আপনি ফলোয়ার বাড়ানোর জন্য শুধু ফলো পাঠালেই হবে না খেয়াল রাখতে হবে যেন ফলো রেশিও ১:১ হয়।

এক্ষেত্রে আপনাকে যারা ফলো ব্যাক করে নি তাদের আনফলো করার জন্য।

কয়েকটি টুলস ব্যবহার করতে পারেনঃ

  1. Tweepi:- Tweepi নামের এই টুলস টি ব্যবহার করতে পারি। এটার মাধ্যমে প্রতিদিন ১০০ জন কে আনফলো করতে পারি।
  2. Unfollowers: এই টুলস এর মাধ্যমেও আমরা আনফলো করতে পারি।
  3. iUnfollow: এই টুলস এর মাধ্যমেও আনফলো করতে পারি, এবং যারা ফলো ব্যাক করে নি কিন্তু তাদের আমরা আনফলো করতে চাচ্ছি না তাদের কে Whete list করে রাখতে পারি।
  4. Common.it:- এই টুলস এর মাধ্যমে আনফলো, White list, এবং এস এম এস এর রিপ্লাই করতে পারি।

তারপর যে বিষয়টি আসে সেটি হলো Competitor analycis. অর্থাৎ আপনার ওয়েবসাইট এর Competitor কারা, তাদের কিভাবে এনালাইস করবেন?

এর জন্য কয়েকটি টুলস রয়েছে। যেমনঃ-

  1. Followerwon.
  2. Twitonomy.

এ সকল টুলস এর মাধ্যমে খুব সহজে আপনি টুইটার ব্যবহার করতে করে Twitter marketing করতে পারি ।

Twitter এর মাধ্যমে কিভাবে Twitter marketing করতে পারি